একলা বলো রে

English   |   Bangla

রাহুল গান্ধীর পাখির চোখ বিজেপি-বিরোধী মহাজোট, তাই মমতার ব্রিগেডে কংগ্রেসের উপস্থিতি কাম্য

জানুয়ারির শেষে বা ফেব্রুয়ারির শুরুতে মোদীকে ব্রিগেডে এনে তৃণমূলের পাল্টা দিতে চায় বিজেপি

 |  2-minute read |   09-01-2019
  • Total Shares

১৯ জানুয়ারি ব্রিগেড সমাবেশ ডেকেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই সমাবেশে বিজেপি-বিরোধী সব রাজনৈতিক দলকে তিনি আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। এই সমাবেশকে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা ও সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী মঞ্চ হিসেবে তুলে ধরতে চাইছেন মমতা। সেই কারণেই গত সোমবার খুঁটি পুজো করে এবং নারকেল ফাটিয়ে মঞ্চ তৈরি করার কাজকে একটা মাঙ্গলিক অনুষ্ঠানের সূচনা হিসেবে তুলে ধরতে চেয়েছে তৃণমূল। পাশাপাশি, লোকসভা নির্বাচনের আগে এই সমাবেশকে বিরোধী ঐক্যের নিদর্শন হিসাবেও দেখাতে চান বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

তবে, বামেরা এই সমাবেশে যাবে না বলেই জানিয়ে দিয়েছে। যদিও, সরকার বিরোধী একাধিক ইস্যুতে বাম ও তৃণমূল কংগ্রেসকে কাছাকাছি দেখা গিয়েছে। তবে এই ব্রিগেড সমাবেশ কংগ্রেসের কাছে কঠিন প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্ব চায় না মমতার ব্রিগেড সমাবেশে কংগ্রেসে কোনও হেভিওয়েট নেতা যোগ দিন। কিন্তু কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর এখন পাখির চোখ হল বিজেপি বিরোধী মহাজোট। এই জোটে জাতীয় রাজনীতিতে মমতার গুরুত্ব বুঝে তাঁকে চাইছেন রাহুল। এই অবস্থায় কংগ্রেসের কোনও গুরুত্বপূর্ণ নেতা যদি ব্রিগেডে না আসেন তাহলে বড়সড় ধাক্কা হতে পারে বিজেপি বিরোধী জোট গড়ার লক্ষে। তাই তৃণমূলের ব্রিগেড সমাবেশ এখন রাহুলের কাছে শ্যাম রাখি না কূল রাখি এই অবস্থা তৈরি করেছে।

body_010919060104.jpg

আমার মনে হয় তৃণমূলের ব্রিগেড থেকে কংগ্রেসকে দূরে রাখার পথে হাঁটবেন না রাহুল। অতীতে জাতীয় রাজনীতির বাধ্যবাধকতায় অনেক সময়েই প্রদেশ নেতৃত্বের কথায় কান দেয়নি কংগ্রেসের হাইকম্যান্ড। এ ক্ষেত্রেও তাই হবে বলেই মনে হচ্ছে।

অন্যদিকে, মমতার ব্রিগেড বিজেপির রাজ্য নেতৃত্বের কাছেও একটা বড় চ্যালেঞ্জ। ইতিমধ্যেই তারা জানুয়ারির শেষে অথবা ফেব্রুয়ারি প্রথমে প্রধানমন্ত্রী মোদীকে এনে ব্রিগেড সমাবেশ করার কথা বলেছে। এই কথা তৃণমূলের কানে পৌঁছেছে। তাই ক্ষমতা জাহির করতে এবারের ব্রিগেড সমাবেশে অতীতের ভিড়কে চাপিয়ে যেতে চাইবে তৃণমূল। ফলে, সেই ভিড়ের পরে বিজেপিকে ব্রিগেড সমাবেশে পাল্টা জবাব দিতে হবে। কিন্তু এই রাজ্যে সাংগঠনিক দিক থেকে বিজেপি যে তৃণমূলের থেকে অনেক পিছিয়ে রয়েছে তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।

তাই রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের কাছে তৃণমূলের ব্রিগেড সমাবেশ দু'দিক থেকে চাপের বিষয়। এক, যদি ব্রিগেড সমাবেশে তৃণমূল নেত্রী সব বিরোধী দলের নেতা নেত্রীদের উপস্থিত করতে পারেন তাহলে সর্বভারতীয় স্তরে বিজেপি বিরোধী জোটের একটা জোরালো ছবি তৈরি হবে। আর, দ্বিতীয় চাপ হল, প্রধানমন্ত্রীকে এনে ব্রিগেডের সমাবেশে বিপুল সংখ্যায় লোক জড়ো করা।

Writer

BISWAJIT BHATTACHARYA BISWAJIT BHATTACHARYA

Veteran journalist. Left critic. Political commentator.

Comment