না, যুক্তরাজ্যের আদালতে বিজয় মালিয়ার প্রত্যর্পণের ব্যাপারে লড়েননি কপিল সিবাল

কী ভাবে, কোন প্রেক্ষিতে এই ‘খবর’ ছড়াল তা খতিয়ে দেখল ইন্ডিয়া টুডে

 |  2-minute read |   08-02-2019
  • Total Shares

যখন পলাতক ব্যবসায়ী বিজয় মালিয়ার প্রত্যর্পনের জন্য সরকার নিদারুণ ভাবে চেষ্টা করছে তখন সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি মেসেজ ভাইরাল হয়ে গেছে। তা হল, মালিয়ার প্রত্যর্পনের বিরোধিতা করে লন্ডন হাইকোর্টে আবেদন করেছেন কংগ্রেস নেতা কপিল সিবাল। এই দাবিটি নমো (NAMO) নামে একটি ফেসবুক পেজেও রয়েছে যে পেজের ফলোয়ারের সংখ্যা ৪৫ লক্ষ।

mallya_020819035431.jpegবিজয় মালিয়ার প্রত্যর্পণের ব্যাপারে যুক্তরাজ্যের আদালত নির্দেশ দেওয়ার দু’মাসেরও কম সময়ের মধ্যে তাতে সই করে দেন ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র সচিব সাজিদ জাভিদ। (ফাইল ছবি: রয়টার্স)

যখন পলাতক ব্যবসায়ী বিজয় মালিয়ার প্রত্যর্পণের জন্য সরকার নিদারুণ ভাবে চেষ্টা করছে তখন সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি মেসেজ ভাইরাল হয়ে গেছে। তা হল, মালিয়ার প্রত্যর্পনের বিরোধিতা করে লন্ডন হাইকোর্টে আবেদন করেছেন কংগ্রেস নেতা কপিল সিবাল। এই দাবিটি নমো (NAMO) নামে একটি ফেসবুক পেজেও রযেছে যে পেজের ফলোয়ারের সংখ্যা ৪৫ লক্ষ।

sibal_020819035745.jpg

যখন এই লেখাটি সম্পাদনা করা হচ্ছিল এই পোস্টটি ৯,৭০০-র বেশি শেয়ার হয়ে গেছে। ফেসবুক ব্যবহারকারীরা কপিল সিবালকে তো রাষ্ট্রবিরোধী তকমা দিয়েই দিয়েছেন এমনকি তাঁর প্রাণনাশের হুমকিও দিয়ে দিয়েছেন। ইন্ডিয়া টুডের ফ্যাক্ট চেক ওয়ার রুম (এএফডব্লিুউএ) দেখেছে যে ব্যাপারটি পুরোপুরি ভুয়ো। ফেসবুকের সেই পোস্টটি এখানে ক্লিক করে দেখতে পারেন

বিজয় মালিয়ার প্রত্যর্পনে কপিল সিবালের ভূমিকা নিয়ে আমরা সংবাদমাধ্যমে কোনও প্রতিবেদন দেখতে পাইনি। ইন্ডিয়া টুডেকে কপিল সিবাল বলেন, “এটা পুরোপুরি মিথ্যা, আমি কোনও দিনও মালিয়ার হয়ে লড়িনি।”

আমরা দেখেছি যে এই প্রতিবেদনটি নেওয়া হয়েছে ফেকিংনিজ(ডট)কম নামে একটি ওয়েবসাইট থেকে যে ওয়েবসাইটটি একটি হাস্যকৌতুকময় ওয়েবসাইট, যার ডিসক্লেমারে বলা হয়েছে, “সম্পাদকীয় বলে নির্দিষ্ট বিভাগের বাইরে থাকা সব পোস্টই কল্পনাপ্রসূত।”

faking_020819035549.jpg

ওই পোস্টটির স্ক্রিনশট এমন ভাবে নেওয়া হয়েছে যাতে মনে হয় যে এটা সত্যিকারের খবর।

ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রসচিব সাজিদ জাভিদ বিজয় মালিয়ার প্রত্যর্পণের ব্যাপারে যুক্তরাজ্যের আদালত নির্দেশ দেওয়ার দু’মাসেরও কম সময়ের মধ্যে তাতে সই করে দেন ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র সচিব সাজিদ জাভিদ। পরে ওই মদব্যবসায়ী ঠিক করেন যে তিনি প্রত্যর্পণের নির্দেশের বিরুদ্ধে আবেদন করবেন।

ইন্ডিয়া টুডে ফ্যাক্ট চেক

fc_020819035819.jpg

দাবি: কংগ্রেস নেতা কপিল সিবাল চেষ্টা করেছিলেন যাতে বিজয় মালিয়ার প্রত্যর্পণ আটকানো যায়।

ঘটনা: এমন কোনও আবেদনই করেননি কপিল সিবাল

লেখাটি পড়ুন ইংরেজিতে

Comment