ফ্যাক্ট চেক: উত্তরপ্রদেশে পাওয়া গেলো ৩৩৫০ হাজার টন সোনা?

বিভ্রান্তিকর তথ্যটি ভাইরাল হলো সোশ্যাল মিডিয়ায়

 |  1-minute read |   03-03-2020
  • Total Shares

দা ইন্ডিয়া নামের একটি ফেসবুক পেজ একটি ছবি পোস্ট করেছে সঙ্গে দাবি, ''ভারতীয় ভূতত্ত্ববিদরা খুঁজলেন দুটি সোনার খনি সোনার খনি যেখানে রয়েছে ৩৩৫০ টন সোনা।  এই খনিটি রয়েছে উত্তরপ্রদেশের নকশাল আক্রান্ত সন্ভদ্রা জেলাতে। বর্তমানে যে পরিমান সোনা ভারতে মজুদ আছে তার থেকে পাঁচ গুন্ বেশি সোনা রয়েছে এই খনিতে।''

gold-body_030320071836.jpg

পোস্টটি শেয়ার করেছেন ২৮০০-র বেশি মানুষ।

এখানে দেখতে পারেন পোস্টটির আর্কাইভ।

ইন্ডিয়া টুডে অ্যান্টি-ফেক নিউজ ওয়ার রুম (আফওয়া) দেখেছে দাবিটি বিভ্রান্তিকর। আফওয়া ছবিটি রিভার্স সার্চ করে দেখেছে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যবহৃত ছবিটি আসলে এগারো বছর পুরনো এবং ভারত নয় ইন্দেনেশিয়ার।

২০০৯ সালে ইন্দোনেশিয়ার এক অঞ্চলে সোনার খনি থেকে ছবিটি তোলা হয়। রয়টারের তারমিজই হারভা নামের এক ফটোগ্রাফার ছবিটি তোলেন।

এছাড়া যে দাবিটি করা হয়েছে যে ৩৩৫০ টন সোনা পাওয়া গেছে সেই খবর পরে খণ্ডন করে জিওলজিকাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া। তারা একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানায় আসলে ৫৬৮০৬ ২৫ টন ওর পাওয়া গেছে যার মধ্যে থেকে ১৬০ কেজি সোনা উদ্ধার করা সম্ভব।

gsi-body_030320073755.jpg

এই একই খবর জিএসআই টুইট-ও করে।

অর্থাৎ সোশ্যাল মিডিয়ায় যে দাবি করা হয়েছে যে সোনার পরিমান ৩৩৫০ কেজি, তা নয়। সোনার পরিমান ১৬০ কেজি। তাই সোশ্যাল মিডিয়ায় করা দাবিটি বিভ্রান্তিকর এবং সঠিক নয়।

ফ্যাক্ট চেক: উত্তরপ্রদেশে পাওয়া গেলো ৩৩৫০ হাজার টন সোনা?
Claimউত্তরপ্রদেশে পাওয়া গেলো ৩৩৫০ হাজার টন সোনা Conclusion জিএসআই ৫৬৮০৬ ২৫ টন ওর পাওয়া গেছে যার মধ্যে থেকে ১৬০ কেজি সোনা উদ্ধার করা সম্ভব।
JHOOTH BOLE KAUVA KAATE

The number of crows determines the intensity of the lie.

  • 1 Crow: Half True
  • 2 Crows: Mostly lies
  • 3 Crows: Absolutely false
If you have a story that looks suspicious, please share with us at factcheck@intoday.com or send us a message on the WhatsApp number 73 7000 7000

Writer

RATNA RATNA @blowinindwind

The writer is citizen of planet earth, journalist, documentary filmmaker

Comment