একলা বলো রে

English   |   Bangla

পরিবারপছু স্মার্টফোন থেকে ব্রাহ্মণদের গাড়ি: অন্ধ্রে এখন সরকারি উপহারের ঢল

ক্রমেই জনপ্রিয় হচ্ছে বিরোধীরা, তাই ক্ষমতা দখলে এখন মরিয়া চন্দ্রবাবু নাইডু

 |  2-minute read |   11-01-2019
  • Total Shares

অন্ধ্রপ্রদেশে সাধারণ নির্বাচন ও রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন যতই এগিয়ে আসছে ততই রাজ্য জুড়ে নির্বাচনী যুদ্ধ জমে উঠছে। ক্ষমতায় টিকে থাকতে শাসক দল তেলুগু দেশম পার্টি (টিডিপি) মরিয়া হয়ে উঠেছে।

২০১৪ সালে চন্দ্রবাবু নাইডু যখন ক্ষমতায় এসেছিলেন তখন তিনি এনডিএ-র শরিক ছিলেন। অভিনেতা তথা রাজনৈতিক নেতা পবন কল্যাণের দল জনসেনাও তাঁকে সমর্থন করেছিল।

কিন্তু শেষ সাড়ে চার বছরে অনেক কিছুই বদলে গিয়েছে।

এনডিএ ত্যাগ করেছেন চন্দ্রবাবু নাইডু। পবন কল্যাণও এখন আর টিডিপি-কে সমর্থন করেন না।

প্রভাবশালী কাপু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি পবন কল্যাণ। রাজ্যের জনসংখ্যার ২৭ শতাংশ মানুষ এই সম্প্রদায়ভুক্ত। গোটা রাজ্যে জাতি ধর্ম নির্বিশেষে এই অভিনেতার জনপ্রিয়তাও এখন তুঙ্গে।

উল্টোদিকে, প্রধান বিরোধী দল ওয়াইএসআর কংগ্রেসও নাইডুর রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছে। দলের প্রধান নেতা ওয়াইএস জগন্মোহন রেড্ডি গত ১৫ মাস ধরে রাজ্যের ১৭৫টি বিধানসভা আসন জুড়ে ৩০০০ কিলোমিটার পদযাত্রার আয়োজন করেছেন।

body_011119050316.jpg২০১৪ সালের পরে পবন কল্যাণ ও চন্দ্রবাবু নাইডুর সম্পর্ক ছিন্ন হয়েছে [সৌজন্য: টুইটার]

এই জোড়া চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ে ভোটারদের তুষ্ট করতে নতুন নতুন পরিকল্পনা কষতে হচ্ছে নাইডুকে। আর মুখ্যমন্ত্রী সহজে জনপ্রিয় হয়ে ওঠার পথটাই বেছে নিয়েছেন।

গত বছরই সরকারের পক্ষ থেকে একটি গ্রামীণ আবাসন প্রকল্প চালু করা হয়েছে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্যের দরিদ্রদের জন্য ২০ লক্ষ বাসস্থান ব্যবস্থা করে দেওয়ার কথা। এছাড়া চন্দ্রণা বিমা নামক একটি প্রকল্পও চালু করা হয়েছে যাতে মৃত্যুর পর বা দুর্ঘটনায় প্রতিবন্ধী হয়ে গেলে অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকদের পরিবারবর্গকে সাহায্য প্রদান করা যায়।

প্রতিবেশী তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম জয়ললিতার প্রকল্পের ধাঁচে অন্ধ্রপ্রদেশেও এনটিআর ক্যান্টিন চালু করেছেন নাইডু।

স্বনির্ভর প্রকল্পের মাধ্যমে বেকার ব্রাহ্মণদের একটি করে সুইফট ডিজায়ার গাড়ি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

প্রথম ধাপে ৫০টি গাড়ি দেওয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

body1_011119050412.jpgওয়াই এস জগন্মোহন রেড্ডি গত ১৫ মাস ধরে পদযাত্রা করছেন [ছবি: পিটিআই]

রাজ্যের প্রতিটি পরিবারকে স্মার্টফোন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এর জন্য ১৪ লক্ষ মোবাইলের হ্যান্ডসেট উৎপাদনের কথাও বলা হয়েছে।

সম্প্রতি কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধে নির্বাচনে লড়তে নেমে তেলঙ্গনাতে গো-হারান হেরেছেন নাইডু।

এই মুহূর্তে দেশের অন্যতম অভিজ্ঞ রাজনৈতিক নেতা তথা টিডিপি প্রধান নিঃসন্দেহে জানেন যে তেলঙ্গনাতে হারলেও চলবে। কিন্তু তাঁর নিজের ঘরে, অন্ধ্রপ্রদেশে কোনও মতেই হারা চলবে না।

অন্ধ্রপ্রদেশে হারা মানে তিনি শুধু ক্ষমতাই হারাবেন না, তাঁর মোদী বিরোধী জোটের স্বপ্নও ভেঙে চুরমার হয়ে যাবে।

তাঁর হারের ফলে তাঁর পুত্র তথা রাজ্যের তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী নরা লোকেশের অন্ধ্রপ্রদেশের পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার সম্ভাবনাও শেষ হয়ে যাবে।

লেখাটি পড়ুন ইংরেজিতে

Writer

ASHISH PANDEY

Author is associate editor with India Today TV

Comment